যে কারনে ৫৭ ধারার মামলায় গ্রেফতার হলেন বিডিজবসের প্রতিষ্ঠাতা ফাহিম মাসরুর

0
1198
Fahim Mashroor

বাংলাদেশে চাকরিদাতা এবং চাকরিপ্রার্থীদের সবচেয়ে বড় ওয়েবসাইট বিডি জবসের প্রধান নির্বাহী একেএম ফাহিম মাসরুরকে আটক করেছে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। বুধবার সকালে রাজধানীর কাওরান বাজারে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান কার্যালয় থেকে তাকে আটক করে ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) জনসংযোগ শাখার উপ-কমিশনার (ডিসি) মাসুদুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

রাজধানীর কাফরুল থানায় ২২ এপ্রিল ৫৭ ধারায় ফাহিম মাসরুরের বিরুদ্ধে একটি মামলা করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটূক্তি করার অভিযোগ আনা হয়েছে মামলায়। মামলাটি করেছেন আল সাদিক। সাদিক ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখার সাবেক গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক।

ফাহিম মাসরুর কোটা সংস্কার আন্দোলনের সমর্থনে সামাজিক যোগাযোগ বেশ সরব ছিলেন। এছাড়া প্রশ্ন ফাঁস নিয়েও সরকারের সমালোচনা করেছেন জোড়ালো ভাবে। এছাড়া তার ফেসবুক প্রোফাইলে দেখা যায় তিনি সরকারের নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে ছিলেন সরব।

কোটা সংস্কার আন্দোলনের প্রেক্ষিতে সংসদে দেয়া প্রধানমন্ত্রীর ভাষনের (যে ভাষনে প্রধানমন্ত্রী কোটা বাতিল করে দিয়েছিলেন) জবাবে ফাহিম মাসরুর লিখেছিলেন “জনগণকে যে ধারন করে সেই মহান নেতা, জনগণের সাথে অভিমান করে কেউ নেতা হতে পারে না। বঙ্গবন্ধু জনগণকে ধারণ করেছিলেন। জয় বাংলা।” এই ভাষনে শেখ হাসিনাকে অযোগ্য বলা হয়েছে বলে মনে করছেন ছাত্রলীগ নেতারা। ফাহিমের শুভাকাঙ্খীদের ধারনা এই পোস্ট এবং কোটা সংস্কার আন্দোলনের পক্ষে ও বিভিন্ন সময় সরকারের অনিয়মের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখালেখির কারনেই ক্ষমতাসীন দল ফাহিম মাসরুরের উপর অসন্তুষ্ট ছিলেন। আর এর ফলেই গ্রেফতার করা হয়েছে ফাহিমকে।

কোটা সংস্কার আন্দোলনের সময় থেকেই ছাত্রলীগের বর্তমান ও সাবেক শীর্ষ নেতারা হুমকি দিয়ে পোস্ট দিয়ে যাচ্ছিলেন ফাহিম মাসরুরের বিরুদ্ধে।

ফাহিম মাসরুরের কিছু ফেসবুক পোস্ট দেখিয়ে হুমকি দিয়ে ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক এর পোস্ট
ফাহিম মাসরুরের সমালোচনা করে ছাত্রলীগের বর্তমান সাধারন সম্পাদক এর পোস্ট

প্রায় দেড় যুগ আগে একেএম ফাহিম মাসরুর বিডিজবস.কম প্রতিষ্ঠা করেন। এছাড়াও তিনি দেশের প্রথম বাংলা সোশ্যাল মিডিয়া বেশতো এবং ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আজকের ডিলের প্রধান নির্বাহী। তিনি দেশের সফটওয়্যার ও তথ্যপ্রযুক্তি সেবা খাতের সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)-এর ২০১২-২০১৩ মেয়াদে সভাপতির দায়িত্বও পালন করেছেন।